সকল অন্যায়ের বিরুদ্ধে বলিষ্ঠ কণ্ঠস্বর

খালাস করতে দেওয়া হচ্ছেনা ১৭৪ টন মাংস, প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরে স্মারকলিপি

ঢাকা সিটি রিপোর্টার:
বাংলাদেশ পশু ও পশুজাত পণ্য সঙ্গনিরোধ আইন-২০১৫ লঙ্ঘন করে দেশে আমদানিকৃত হিমায়িত মহিষের মাংসের কোয়ারেন্টাইন বন্ধ করে আমদানি কারকদের কোটি কোটি টাকা ক্ষতির পাঁয়তারার অভিযোগ এনে প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের নিকট স্মারকলিপি প্রদান করেছেন হালাল মিট ইমপোটার্স এ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ।

হালাল মিট ইমপোটার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশে এর ব্যানারে রবিবার এ স্মারকলিপি প্রদান করেন মহিষের মাংস আমদানিকারী ব্যবসায়ীরা।

এর আগে রাজধানীর খামারবাড়িতে প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের সামনে এক সংক্ষিপ্ত অবস্থান কর্মসূচির আয়োজন করা হয়। কর্মসূচিতে তারা জানান, তারা দীর্ঘদিন ধরে সরকারকে ভ্যাট-টেক্স দিয়ে সম্পূর্ণ বৈধভাবে বিদেশ থেকে মহিষের মাংস আমদানি করে আসছেন।

তাদের অভিযোগ, অতিসম্প্রতি চট্টগ্রাম বন্দরে আগত ৬ লটে ১৭৪ টন মহিষের মাংস কোয়ারেন্টাইন করার ছাড় পত্র না দিয়ে বরং নিলামে তোলার চেষ্টা চালাচ্ছে একটিমহল। এই তৎপরতা বন্ধ করে দ্রুত পণ্য খালাসের ব্যবস্থা গ্রহণে সরকারের সংশ্লিষ্ট মহলের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।

কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি শামীম আহমেদ, সিনিয়র সহ-সভাপতি বোরহানউদ্দীন, যুগ্ম সম্পাদক তোফায়েল আহমেদ, অর্থ সম্পাদক আলমগীর মাহবুবুর রহমান, আইন সম্পাদক আপেল মাহমুদ, যুগ্ম অর্থ সম্পাদক সৈয়দ মো, বোরহান উদ্দীন প্রমুখ।

Comments are closed, but trackbacks and pingbacks are open.