সকল অন্যায়ের বিরুদ্ধে বলিষ্ঠ কণ্ঠস্বর

ভোলার চরে দুর্ধর্ষ ডাকাতি-লুটপাট

ভোলার চরে গ্রামবাসীদের উপর হামলা ও লুটপাটের অভিযোগ
নিউজ ডেস্ক: ভোলার চরে দুর্ধর্ষ ডাকাতি, চরবাসীর উপর হামলা, বাড়িঘর ভাঙচুর, লুটপাট ও অগ্নিসংযোগ করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল ভোলার চরে আলতু ডাকাত বাহিনী ও লক্ষ্মীপুরের হারেস ডাকাত বাহিনীর সদস্যরা এক হয়ে গ্রামবাসীর উপর এ হামলা চালায়।

এ ঘটনায় ৬ জন গ্রামবাসী গুরুতর আহত হয়েছে। আহতরা হলেন- মোঃ করিম আখন, মোঃ কাদের, জাহানারা বেগম, বিবি মরিয়ম, মোঃ রশিদ আখন, মোঃ আব্দুস সালাম মিঠু। আহতদের মধ্যে গরুতর ৪ জনকে ভোলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত চারজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাদেরকে বরিশাল শেরে বাংলা মেডিকেল কলেজে উন্নত চিকিৎসার জন্য রেফার হয়।

চরের বাসিন্দারা জানান, বেশ কিছুদিন থেকেই নিরীহ চরবাসীর উপরে ওহাব আলির নেতৃত্বে লুটপাট ডাকাতি চালিয়ে আসছে আলতু ডাকাত ও হারেছ ডাকাত বাহিনী। সোমবার আবারো নিরীহ চরবাসীর উপরে সশস্ত্র ডাকাত দল ডাকাতি ও গবাদি পশু লুটপাট ও হামলা চালায়।

ডাকাত দল লক্ষ্মীপুর জেলার ও চর অঞ্চলের হওয়ার তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে পারছেন না বলে জানান ভোলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এনায়েত হোসেন।

ডাকাত দলের মূলহোতা ওহাব আলী একাধিক ডাকাতি মামলার আসামি হয়েও থানা পুলিশের নাকের ডগায় প্রকাশ্যে ঘুরে চলছে। বারবার ডাকাতি লুটপাট হামলা ভাঙচুর অগ্নিসংযোগ করেও পার পেয়ে যাচ্ছে তারা। আর থানা পুলিশ প্রশাসন অসহায়ত্বে আশাহত হচ্ছেন চরের বাসিন্দারা। ভুক্তভোগী পরিবারগুলো এ ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

Comments are closed, but trackbacks and pingbacks are open.