সকল অন্যায়ের বিরুদ্ধে বলিষ্ঠ কণ্ঠস্বর

জাতীয় আয়কর মেলা; সেবার মান বাড়ানোর তাগিদ করদাতাদের

0

untitled-1স্টাফ রিপোর্টার:
রাজধানীর আগারগাঁওয়ে চলছে আয়কর মেলা। অন্য বছরের তুলনায় এবারের মেলায় করদাতাদের সমাগম বেশি। মেলায় সেবাদাতার সংখ্যা কম হওয়ায় হিমশিম খেতে হচ্ছে তাদের। এতে ভোগান্তিতে পড়ছেন মেলায় আগত করদাতারা। গত মঙ্গলবার থেকে শুরু হওয়া সপ্তাহব্যাপী মেলায় দেখা গেছে সকাল থেকে করদাতা ও দর্শনার্থীদের পদচারণায় মুখরিত মেলা প্রাঙ্গণ। তবে ভোগান্তির কারণে সেবার মান বাড়ানোর তাগিদ দিয়েছেন মেলায় আগত করদাতারা।
সরেজমিনে দেখা গেছে, অনলাইন আয়কর রিটার্ন দাখিল, ই-টিআইএন ডেলিভারি বুথ, ই-টিআইএন গ্রহণ, হেল্প ডেক্স, কর অঞ্চলসহ প্রত্যেক বুথেই করদাতাদের উপচে পড়া ভিড়। দর্শনার্থীদের সামলাতে রীতিমত হিমশিম খাচ্ছেন মেলায় সেবাদাতারা। বিশেষ করে ব্যাংকের বুথে টাকা জমা দিতে দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায় করদাতাদের। এমনকি মেলা প্রাঙ্গণে টেবিলের সংখ্যা পর্যাপ্ত না হওয়ায়, রিটার্ন দাখিলকারীদের দাঁড়িয়ে, হাতে রেখে, আরেকজনের পিঠে ফরম পূরণ করতে দেখা যায়। এবার মেলায় নারী করদাতাদের উপস্থিতি চোখে পড়ার মতো। তবে নারী ও নতুন করদাতারা পড়েছেন সবচেয়ে বেশি ভোগান্তিতে। নারীদের জন্য আলাদা বুথের ব্যবস্থা না থাকায় উপচে পড়া ভিড় ঠেলে তাদের আয়করের কাজ করতে হচ্ছে। অন্যদিকে, প্রচ- ভিড় হওয়ায় নতুন করদাতারা না বোঝার কারণেও ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন।
এবারে প্রথম আয়কর জমা দিতে এসেছেন মঙ পুরি অঙ মারমা। শনিবার সারাদিন ঘুরেও আয়কর জমা দিতে পারেন নি। গতকাল আবার এসেছেন মেলায়। তিনি বলেন, শনিবার সারাদিন কাগজপাতি নিয়ে অনেক চেষ্টা করেছি। শেষে হেল্প ডেক্স থেকে বলা হলো- “আপনার সেলারি স্টেটমেন্ট লাগবে। আজকে হেল্প ডেক্সে যাওয়ার পর বললেন ই-টিআইএন করেন। এরপর ৫৬ নম্বর বুথে পাঠালো। অতিরিক্ত ভিড়ের কারণে কেউ বেশি সময় নিয়ে বোঝাতে পারছেন না। এ কারণে আমার মত নতুন করদাতারা একটু সমস্যায় পড়ছেন। এজন্য আমি মনে করি, মেলায় হেল্প ডেক্সের সংখ্যা বাড়ানোর পাশাপাশি জনবলও বাড়ানো উচিত।”
মেলার প্রধান সম্বনয়কারী মো. আব্দুর রাজ্জাক জানান, এবারের মেলায় করদাতাদের প্রচুর অংশ গ্রহণ। নারীদের জন্য আলাদা বুথের ব্যবস্থা না থাকলেও সেচ্ছাসেবকদের বলে দেওয়া আছে কোনো বুথে নারী থাকলে তাদের জন্য আলাদা ব্যবস্থা করে দিতে। একই সঙ্গে এবারের মেলায় ২৩টি হেল্প ডেক্স আছে- করদাতাদের সকল প্রকার সহযোগিতা করার জন্য কাজ করছে। আমরা প্রতিবার সেবার মান উন্নত করার চেষ্টা করছি। কর প্রদানে ব্যক্তি শ্রেণির করদাতাদের উৎসাহিত করতে প্রতি বছর আয়কর মেলার আয়োজন করছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। ৬২ হাজার বর্গফুটের এনবিআরের নিজস্ব ভবন চত্বরে আয়োজিত আয়কর মেলায় বুথের সংখ্যা ১০৯টি। মেলায় অধিক সংখ্যক সেবা বুথ ছাড়াও রয়েছে মুক্তিযোদ্ধা, সিনিয়র সিটিজেন ও প্রতিবন্ধী করদাতাদের পৃথক বুথ, কর একাডেমি, শুল্ক একাডেমি, কর ও মূসক ট্রাইব্যুনালের জন্য বুথ এবং শিশুদের জন্য রয়েছে পৃথক কিডস জোন। রয়েছে প্রথমবারের মতো অনলাইনে আয়কর রিটার্ন দাখিলের সুবিধাও। রাজধানীসহ সব বিভাগীয় শহরে ৭ দিনব্যাপী এ মেলা চলবে। জেলা শহরগুলোতে ৪ দিন, ২৯টি উপজেলায় ২ দিনব্যাপী স্থায়ী আয়কর মেলা ও ৫৭টি উপজেলায় ১ দিনের ভ্রাম্যমাণ আয়কর মেলা অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

Leave A Reply