কোভিড-১৯ নানা ভ্যারিয়েন্ট পেরিয়ে এখন ডেল্টা প্লাস ভ্যারিয়েন্ট এ রুপ নিয়েছে। প্রতিবেশি দেশ ভারত থেকে আমাদের দেশে ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট ছড়িয়ে পরেছে। ডেল্টার আক্রমণ সীমান্ত অঞ্চল পেরিয়ে এখন সারাদেশে বিস্তৃতি লাভ করেছে। গ্রামাঞ্চলে অক্সিজেন, আইসিইউসহ সুচিকিৎসার অপ্রতুলতা রয়েছে। ঈদে বিপুল পরিমাণ লোকজন গ্রামমুখী হওয়ায় আগস্টে ভয়াবহ বিপর্যয়ের আশঙ্কা করছেন বিশেষজ্ঞরা।
এরই মধ্যে আমাদের জন্য সুখবর হয়ে এসেছে একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের জরিপের ফলাফলে। প্রায় ৫০০ (পাঁচশত) করোনা আক্রান্ত রোগীর উপর জরিপ চালিয়েছে তারা। যারা সকলেই হোমিওপ্যাথি চিকিৎসা গ্রহণ করেছেন এবং সকলেই সুস্থ হয়েছেন। কাউকেই আইসিইউতে যাওয়ার মতো অবস্থার মুখোমুখি হতে হয়নি। হোমিও ঔষধ প্রয়োগের দ্বারা শরীরের ইমিউনিটি বৃদ্ধি পায়। ফলে আক্রান্ত রোগীর ফুসফুস ব্যাপক আক্রমণ থেকে রক্ষা পায়। এমতাবস্থায় করোনা আক্রান্তদের হোমিও উন্নত চিকিৎসা সহজলভ্য করার জন্য অভিজ্ঞ হোমিও চিকিৎসক দ্বারা করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত করনার্থে সরকারের সুনির্দিষ্ট উদ্যোগ গ্রহণ করা প্রয়োজন। এক্ষেত্রেও ৩৩৩ হটলাইনের মাধ্যমে হোমিও চিকিৎসা লাভের ব্যবস্থা গ্রহণ করা যেতে পারে। হোমিও চিকিৎসার কার্যকারিতা প্রমাণিত হওয়ায় তুলনামূলক সহজলভ্য এবং কম ব্যয়বহুল হওয়াতে সারাদেশের গ্রামাঞ্চলগুলোতে এ চিকিৎসা সেবা প্রদান সহজ হবে। সময় থাকতে বিষয়টি সরকারের নীতি নির্ধারকদের ভেবে দেখা জরুরি।